অসংখ্য সুযোগ হারিয়ে রিয়ালের কষ্টের জয় – bdnews24.com

5
অসংখ্য সুযোগ হারিয়ে রিয়ালের কষ্টের জয় -
bdnews24.com

লা লিগার ম্যাচে বুধবার ১-০ গোলে ভাইয়াদলিদকে হারিয়েছে জিনেদিন জিদানের দল। এ নিয়ে ঘরের মাঠে টানা ২০ ম্যাচ ধরে অপরাজিত রিয়াল।

দশম মিনিটে প্রথম সুযোগ পায় রিয়াল। বাঁ দিক থেকে লুকা ইয়োভিচের কাটব্যাক ধরে বুলেট গতির শট নেন মার্সেলো। ফিরতি বলে ফেদে ভালভেরদের শট ঝাঁপিয়ে কর্নারের বিনিময়ে কোনোমতে ঠেকান ভাইয়াদলিদ গোলকক্ষক রবের্তো হিমেনেস।

প্রতি আক্রমণ থেকে ১৭তম মিনিটে দারুণ একটি সুযোগ পেয়ে যান ইয়োভিচ। ভালভেরদের নিখুঁত ক্রস বিপজ্জনক জায়গা থেকে লক্ষ্যে রাখতে পারেননি এই সার্বিয়ান ফরোয়ার্ড।

২৮তম মিনিটে ভাইয়াদলিদের অস্কার প্লানো একটি সুযোগ হাতছাড়া করার সাত মিনিট পর খুব কাছ থেকে সাইড নেটে মারেন ইয়োভিচ।

৪৮তম মিনিটে কর্নারে ইয়োভিচের চমৎকার হেড দারুণ দক্ষতায় ফিরিয়ে দেন হিমেনেস। ফিরতি বলে কাসেমিরোর শট ফেরে ক্রসবারে লেগে। হাতছাড়া হয়ে যায় এগিয়ে যাওয়ার চমৎকার সুযোগ।

প্রথমার্ধের সুযোগগুলোতে সেভাবে থিবো কোর্তোয়ার পরীক্ষা নিতে পারেনি ভাইয়াদলিদ। ৫৪তম মিনিটে তাকে কঠিন পরীক্ষায় ফেলেন শন ভাইসমান। প্রতি আক্রমণে মাঝমাঠ থেকে বল নিয়ে এগিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে কোনাকুনি শট নেন এই ফরোয়ার্ড। দারুণ দক্ষতায় ঝাঁপিয়ে তার চেষ্টা ব্যর্থ করে দেন কোর্তোয়া।

৫৮তম মিনিটে ইয়োভিচ, ইসকো ও ওদ্রিওসোলাকে তুলে ভিনিসিউস, আসেনসিও ও মার্সেলোকে নামান জিদান। এরপরই যেন বদলে যায় রিয়াল। খেলায় বাড়ে গতি, আক্রমণে ধার। ফলও মেলে দ্রুত।

৬৫তম মিনিটে এগিয়ে যায় রিয়াল। বল বিপদমুক্ত করতে গিয়ে উল্টো অফসাইডে থাকা ভিনিসিউসের কাছে পাঠিয়ে দেন সফরকারীদের এক খেলোয়াড়। সুবর্ণ সুযোগ কাজে লাগান তরুণ ফরোয়ার্ড।

তিন মিনিট পর খুব কাছ থেকে রাউল গার্সিয়ার শট ঠেকিয়ে রিয়ালের ত্রাতা কোর্তোয়া।

৭৫তম মিনিটে করিম বেনজেমার শট দারুণ দক্ষতায় ফিরিয়ে দেন গোলরক্ষক। দুই মিনিট পর প্রতি আক্রমণে তার পাস থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুবর্ণ সুযোগ আসে ভিনিসিউসের সামনে। এবার আর পেরে ওঠেননি তিনি।

৮৩তম মিনিটে একটুর জন্য দ্বিগুণ হয়নি ব্যবধান। লুকা মদ্রিচের শট ফিরে পোস্টে লেগে। ম্যাচের শেষ শটেও গোল করার সুযোগ ছিল ভিনিসিউসের সামনে। কিন্তু দুর্বল শটে গোলরক্ষকের হাতে বল তুলে দেন তিনি। 

৩ ম্যাচে টানা দ্বিতীয় জয়ে ৭ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে উঠে এসেছে রিয়াল। এক ম্যাচ বেশি খেলা ভালেন্সিয়া ৭ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে আছে। ৩ ম্যাচে সমান পয়েন্ট নিয়ে গোল পার্থক্যে এগিয়ে থেকে শীর্ষে রয়েছে গেতাফে।



Source by [Original Post]

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here