স্যাভলন নিয়ে এলো বাংলাদেশের প্রথম ‘স্যাভলন সুরক্ষা’ সেবা

34
স্যাভলন নিয়ে এলো বাংলাদেশের প্রথম

করোনাভাইরাসের কারনে স্থবির হয়ে পড়েছে ব্যবসা বাণিজ্য, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ অসংখ্য প্রতিষ্ঠান। একই সাথে অনেক প্রতিষ্ঠানে সঠিক স্বাস্থ্যবিধি না মানার কারনে বাড়ছে সংক্রমণের হার। এই পরিস্থিতি থেকে সুরক্ষা নিশ্চিত করতে দেশের ১ নম্বর এন্টিসেপ্টিক ব্র্যান্ড, স্যাভলন নিয়ে এলো নতুন “স্যাভলন সুরক্ষা” সেবা।

এই উপলক্ষে বুধবার, ২২ জুলাই এসিআই সেন্টার, ২৪৫, তেজগাঁও বাণিজ্যিক এলাকায় অনুষ্ঠিত হয় একটি প্রেস কনফারেন্স। এই কনফারেন্সটিতে উপস্থিত ছিলেন এসিআই কনজ্যুমার ব্র্যান্ডস এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর সৈয়দ আলমগীর। এছাড়াও ছিলেন বিজনেস ডিরেক্টর কামরুল হাসান এবং বিজনেস ম্যানেজার জামান আসিফ আহমাদ। সাথে ছিলেন এসিআই ফার্মাসিউটিক্যালস এর ডিরেক্টর অব অপারেশনস ইমাম আহমেদ ইশতিয়াক এবং এসিআই হেলথকেয়ার লিমিটেড এর ডিরেক্টর, কোয়ালিটি অপারেশনস এ বি এম মাহফুজ উল আলম। 

“স্যাভলন সুরক্ষা” সেবার অধীনে স্যাভলনের দক্ষ টিম বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে করোনা প্রতিরোধে সর্বোচ্চ সুরক্ষা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ইন্সপেকশন পরিচালনা করবে। এছাড়াও এই সেবার আওতায় থাকবে কনসালটেন্সি, স্বাস্থবিধি বিষয়ক প্রশিক্ষন, ডিকন্টামিনেশন সহ সার্টিফিকেশনের ব্যবস্থা যা যেকোন প্রতিষ্ঠানকে দীর্ঘমেয়াদী সুরক্ষা প্রদান করবে। এই টিমের সাথে কাজ করবে অভিজ্ঞ ভাইরোলজিস্ট এবং মাইক্রোবায়োলজিস্ট নিয়ে গঠিত একটি স্পেশালাইজড টিম। 

একটি প্রতিষ্ঠানে করোনা ঝুঁকির সার্বিক অবস্থার চিত্র বের হয়ে আসবে এই সার্ভিসের মাধ্যমে। একটি প্রতিষ্ঠান ইন্সপেকশন শেষে যাবতীয় তথ্য বিশ্লেষণ করে স্যাভলন সুরক্ষা টিম থেকে দেয়া হবে স্যাভলন সুরক্ষা রিপোর্ট যা মেনে চললে করোনা ঝুঁকি হবে সর্বনিম্ন। এর পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানের সকলকে দেয়া হবে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষন যা কর্মক্ষেত্রে তাদের দৈনন্দিন জীবনকে করে তুলবে আরো নিরাপদ। ফলে নিশ্চিত করা যাবে প্রতিষ্ঠানের সকলের সর্বোচ্চ সুরক্ষা যা প্রতিষ্ঠানগুলোকে আবার সচল করতে রাখবে মূল্যবান ভূমিকা। দেশের অর্থনীতিতে এই সেবা ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে বলে আশা করছে এসিআই। 

এসিআই কনজ্যুমার ব্র্যান্ডস এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর সৈয়দ আলমগীর বলেন, যুগে যুগে এমন মহামারী অনেকবারই এসেছে যার কারনে বিরাট ক্ষতির মুখে পড়েছে পুরো বিশ্ব। তবে আমি বিশ্বাস করি মহামারী যত ভয়ংকরই হোক না কেনো প্রতিবারের মত এবারও আমরা ঘুরে দাঁড়াবোই। করোনার কারণে অনেক প্রতিষ্ঠানই অর্থনৈতিকভাবে হুমকির মুখে পড়েছে। কিন্তু আমি মনে করি এই সময়ে একটি প্রতিষ্ঠান টিকে থাকলে মুনাফা হবেই। কিন্তু সেজন্য প্রতিষ্ঠানগুলোতে পরিপুর্ণ স্বাস্থ্যসুরক্ষার ব্যবস্থা করা প্রয়োজন।  

তিনি বলেন, করোনাভাইরাসের প্রকোপের শুরু থেকেই স্যাভলন বিভিন্ন সুরক্ষা সামগ্রী সরবরাহ করে করোনা প্রতিরোধে কাজ করে আসছে। বাংলাদেশের মানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে আসছে এই ব্র্যান্ডটি। স্যাভলন একটি সুস্থ, শক্তিশালী এবং জীবাণুমুক্ত বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখে। আর এই দায়িত্ববোধ থেকেই আমরা স্যাভলন সুরক্ষা সেবা নিয়ে এসেছি। এই সেবার মাধ্যমে যেকোন প্রতিষ্ঠান নিশ্চিত করতে পারবে সেই প্রতিষ্ঠানের কর্মী ও গ্রাহকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা। এর মাধ্যমে বন্ধ থাকা প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের নিয়মিত কার্যক্রম শুরু করতে পারবে এবং চলমান প্রতিষ্ঠানগুলো পাবে সামগ্রিক সুরক্ষা। এই সার্ভিস একটি প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধিতেও সহায়ক ভূমিকা রাখবে বলে আশা রাখি।
 
“স্যাভলন সুরক্ষা” সেবাটি গ্রহন করা যাবে ১৬৫০৯ হটলাইন নাম্বার এবং Savlon Shurokkha ও Savlon Bangladesh ফেসবুক পেইজের মাধ্যমে।



Source by [Original Post]

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here