হাসিখুশি থেকো সুশান্ত, প্রদীপ জ্বালিয়ে অঙ্কিতার প্রার্থনা

12
হাসিখুশি থেকো সুশান্ত, প্রদীপ জ্বালিয়ে অঙ্কিতার প্রার্থনা

বলিউড সুপারস্টার সুশান্তের মৃত্যুর পরও তাকে হাসিখুশি ও প্রাণবন্ত হিসেবে মনে রাখতে চান তার সকল অনুরাগী ও ভক্তরা। একইভাবে তার সাবেক প্রেমিকা অঙ্কিতাও চান সুশান্ত যেখানেই থাকুক, আগের মতোই হাসিখুশি থাকুক, ঠিক যেমনটা তিনি আগেও চেয়েছেন। ফের একবার সুশান্তের স্মৃতিতে প্রদীপ জ্বালিয়ে সেই প্রার্থনাই করলেন অঙ্কিতা লোখান্ডে।

সুশান্ত সিং রাজপুতের শেষ ছবি মুক্তির আগে আবারও একবার ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করলেন সুশান্তের ‘ভালোবাসা’র মানুষ অঙ্কিতা। প্রদীপ জ্বালানোর ছবি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছেন এই অভিনেত্রী। ক্যাপশানে লিখেছেন, ‘আশা, প্রার্থনা ও শক্তি। তুমি যেখানেই থাকো, হাসিখুশি থেকো।’

এর আগেও সুশান্তের মৃত্যুর ১ মাস পূর্তি উপলক্ষে প্রদীপ জ্বালিয়ে ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছিলেন এই অভিনেত্রী। ক্যাপশানে সুশান্তের উদ্দেশে তখন লিখেছিলেন, ‘ঈশ্বরের সন্তান’।

সুশান্তের আকস্মিক মৃত্যুর খবরে তার পরিবার ছাড়া যে সবথেকে বেশি কষ্ট পেয়েছেন, তিনি হলেন অঙ্কিতা লোখান্ডে। সুশান্তের মৃত্যুর পর ভেঙে পড়েছিলেন এই অভিনেত্রী। কথা পর্যন্ত বলতে পারছিলেন না। তাদের স্বজনদের অনেকেরই দাবি, সুশান্ত-অঙ্কিতা একসঙ্গে থাকলে হয়তা সুশান্তের জীবনের পরিণতি এমনটা হত না।

‘পবিত্র রিস্তা’ ধারাবাহিকের কাজের সূত্রেই সুশান্ত-অঙ্কিতার বন্ধুত্ব, সেখান থেকেই প্রেম। দীর্ঘ ৬ বছর তারা একসঙ্গে ছিলেন। এমনকি ২০১৬ সালে সুশান্ত-অঙ্কিতা তাদের বিয়ের কথাও সকলকে জানিয়ে দিয়েছিলেন। আর তার ঠিক পরপরই তাদের বিচ্ছেদের খবও আসে। তবে বিচ্ছেদের পরও সুশান্ত-অঙ্কিতা যে একে অপরকে কখনো ভুলতে পারেননি বলে জানিয়েছেন তাদের ঘনিষ্ঠরা।

তারা জানিয়েছেন, সুশান্তের থেকে আলাদা হওয়ার পরও তার প্রতিটি ছবির মুক্তির আগে ঈশ্বরের কাছে সাফল্য প্রার্থনা করেছেন অঙ্কিতা। নিজের ফ্ল্যাটের নেমপ্লেটেও এখনও সযত্নে সুশান্তের নাম অঙ্কিতা রেখে দিয়েছেন।

Source by [Original Post]

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here